চুল সোজা করার ক্রিমের নাম | Best Hair Straightening Creams

ফ্যাশনের এই যুগে কেউ কোঁকড়া চুল পছন্দ করেন, আবার কেউ চান সিল্কি হেয়ারস্টাইল। এর জন্য কিছু মানুষ বিশেষ করে মহিলারা বিউটি পার্লারে গিয়ে চুল সোজা করান। এখন এতে শুধু টাকা খরচ হয় না, অনেক সময়ও লাগে। এমন পরিস্থিতিতে, বিকল্প হিসাবে, কিছু মহিলা চুল সোজা করতে বাড়িতে আয়রন স্ট্রেইটনার ব্যবহার করেন। যদিও, এটি একটি সহজ বিকল্প, তবে চুল পুড়ে যাওয়ার ভয় রয়েছে। এখন প্রশ্ন উঠেছে, এমন পরিস্থিতিতে কী করা উচিত? এই কথা মাথায় রেখেই আমরা নিয়ে এসেছি এই বিশেষ পোস্টটি, আপনার এই সমস্যার সমাধান করতে। এখানে আমরা সেরা চুল সোজা করার ক্রিমের নাম নিয়ে কথা বলেছি। এই ক্রিম গুলি ব্যবহার করা যেমন নিরাপদ তেমনি সহজ।

শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

এখানে আমরা চুল সোজা করার ক্রিমের নাম সম্পর্কে তথ্য দিচ্ছি।

চুল সোজা করার ক্রিমের নাম | Best Hair Straightening Creams in Bangla

কোঁকড়া এবং এলোমেলো চুল সোজা করার জন্য বাজারে অনেক ধরনের ক্রিম পাওয়া যায়। এই ক্রিমটি চুল সোজা করার ক্রিম নামে পরিচিত। পোস্ট এর এই অংশে, আমরা সেরা চুল সোজা করার ক্রিমের নাম সম্পর্কে কথা জানব।

KMS California Therma Shape Straightening Creme

চুল সোজা করার ক্রিমের নাম | চুল সোজা করার উপায়

জট পড়া চুল সোজা করার তালিকায় প্রথম নম্বরে রয়েছে কেএমএস। যদিও, এই ব্র্যান্ডটি খুব বেশি পরিচিত নয়, তবে এই ক্রিমটি চুল সোজা করা ছাড়াও বিভিন্ন উপায়ে উপকারী হতে পারে। এখানে আমরা এর PROS ও CONS সম্পর্কে বলেছি।

PROS

  • ফ্রিজ থেকে চুল সোজা করার জন্য একটি দুর্দান্ত ক্রিম।
  • এই ক্রিমটি 72 ঘন্টা কার্যকর থাকে।
  • এটি সূর্যের ক্ষতিকর অতিবেগুনি রশ্মি থেকে চুলকে রক্ষা করতে পারে।
  • সব ধরনের চুলের জন্য উপযুক্ত।
  • এটি পুরুষ এবং মহিলা উভয়ই ব্যবহার করতে পারেন।
  • প্যাকেজিং ভাল, যার কারণে এটি একটি ব্যাগে বহন করা যেতে পারে। এটি ফুটো হওয়ার সম্ভাবনা কম।
  • এই ক্রিম তৈলাক্ত এবং আঠালো নয়।

CONS

  • খুবই মূল্যবান প্রোডাক্ট।
  • এর অতিরিক্ত ব্যবহার চুলের উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলতে পারে।

Streax Pro Hair Straightener Cream Intense

চুল সোজা করার ক্রিমের নাম | চুল সোজা করার মেশিন

চুলের পণ্যগুলির ক্ষেত্রে Streax একটি বিশ্বস্ত ব্র্যান্ড। কোম্পানির দাবি, এই ক্রিম প্রথম ব্যবহারেই চুলের সিল্ক, মসৃণ এবং সোজা করে দিতে পারে। এটি সিলিকন দ্রাবক দিয়ে তৈরি, যা সোজা চুল অর্জনে সাহায্য করতে পারে এবং চুলকে বিচ্ছিন্ন ও পরিচালনাযোগ্য করে তোলে।

PROS

  • এই ক্রিমটি জল-প্রতিরোধী, অর্থাৎ জল চুলকে প্রভাবিত করে না এবং চুল সোজা থাকে।
  • এটি ব্যবহার করে চুল দীর্ঘ সময় ধরে সোজা থাকতে পারে কোনো ঝামেলা ছাড়াই।
  • চুলের জট দূর করে মসৃণ করতে এটি উপকারী।
  • এটার গন্ধ সুন্দর।
  • এই পণ্যটি কমপক্ষে পাঁচবার ব্যবহার করতে পারেন।
  • ট্রাভেল ফ্রেন্ডলি প্যাকেজিং।
  • এটি চুলের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য এবং উজ্জ্বলতা বজায় রাখতে ব্যবহার করা যেতে পারে।
  • যদিও ক্রিমটি মহিলাদের দিকে লক্ষ্য করে তৈরি করা হয়, তবে এটি পুরুষরাও ব্যবহার করতে পারে।

CONS

  • এটি চুল থেকে সরাতে সময় লাগতে পারে।
  • আপনি প্যাকেজিং এর নির্দেশাবলী অনুযায়ী শুধুমাত্র 72 ঘন্টা পরে আপনার চুল ধুতে পারেন।

Wella Professional Straightening Cream

চুল সোজা করার ক্রিমের নাম | চুল সোজা করার মেশিন এর দাম

এটি একটি সেলুন পেশাদার পণ্য, যা ভাল মানের। এটি প্যাকেজিং এর নির্দেশাবলী অনুযায়ী ব্যবহার করা উচিত। এই পণ্যটি চুলকে দীর্ঘ সময়ের জন্য মসৃণ রাখতে পারে এবং চুলকে পরিচালনাযোগ্য এবং সিল্কি করে তোলে।

PROS

  • এটি ব্যবহার করা সহজ।
  • এতে মাথার ত্বকে কোনো চুলকানি হয় না।
  • কিট ব্যবহারে চুল সোজা হয়ে যায়।
  • সোজা করার ক্রিম 8 থেকে 9 মাস পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে।
  • এ কারণে চুল পড়ে না এবং চুল পাতলা হওয়ার সম্ভাবনাও থাকে না।
  • এটি বাজারে এবং অনলাইন সর্বত্র সহজেই পাওয়া যায়।
  • এটির সামান্য পরিমাণ ব্যবহার করার জন্য যথেষ্ট।

CONS

  • এর গন্ধ রাসায়নিক পূর্ণ, যা কিছু লোক পছন্দ নাও করতে পারে।
  • এর প্রভাব অল্প সময়ের জন্য স্থায়ী হয়।

Bed Head Straightening Cream

চুল সোজা করার ক্রিমের নাম | আকাবাকা চুল সোজা করার উপায়

এই স্ট্রেটেনিং ক্রিমটি বিশেষ করে যারা তাদের চুল স্থায়ীভাবে সোজা রাখতে চান না তাদের জন্য। এটি মাত্র 48 ঘন্টার জন্য আপনার চুল সোজা এবং সিল্কি রাখে।

PROS

  • এটি চুলকে মসৃণ ও পরিচালনাযোগ্য করতে সাহায্য করে।
  • ফ্রিজিগুলি সোজা করার জন্য, এটি একটি ভাল ক্রিম হতে পারে।
  • সব ধরনের চুলের জন্য উপযুক্ত।
  • এটি চুলকে হাইড্রেট করতে পারে।
  • এটি খুব অল্প পরিমাণে ব্যবহার করা যেতে পারে।

CONS

  • প্রয়োগের কিছু সময় পরে চুল তৈলাক্ত হতে পারে।
  • এটি শুধুমাত্র 48 ঘন্টার জন্য চুল সোজা করতে পারে।

L’ANZA Healing Smooth Smoother Hair Straightener Balm

চুল সোজা করার ক্রিমের নাম | চুল সোজা করার ক্রিম এর দাম

এটি ল্যাঞ্জা কোম্পানির তৈরি আরেকটি চুল সোজা করার ক্রিম। এই ক্রিম চুলের আর্দ্রতা লক করে এবং এটিকে স্বাস্থ্যকর রাখার সাথে সাথে কুঁচকি দূর করে। এছাড়াও, এটি অল্প পরিমাণে ব্যবহার করলেই যথেষ্ট।

PROS

  • এটি কোঁকড়া চুল সোজা করতে সাহায্য করতে পারে।
  • আপনি এটি ব্যবহার করার সাথে সাথে চুল মসৃণ এবং চকচকে করে তোলে।
  • কোম্পানির দাবি, এই ক্রিম রাসায়নিকহীন।
  • দীর্ঘ সময় ধরে চুল সোজা রাখতে কার্যকরী।
  • গন্ধ মৃদু এবং সুন্দর। এছাড়াও এটি ব্যবহার করা সহজ।

CONS

  • কিছু সময় পর চুল শুষ্ক ও প্রাণহীন হয়ে যেতে পারে।
  • প্যাকেজিং ভালো না, ক্রিম ছিটকে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

Schwarzkopf Professional Glatt Hair Straightener Cream

চুল সোজা করার ক্রিমের নাম | ঘরোয়াভাবে চুল সোজা করার উপায়

এই হেয়ার স্ট্রেটেনিং ক্রিমে কেরাটিন থাকে, যা চুলকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে। এটি বিশেষভাবে কোঁকড়া এবং জট চুল সোজা করার জন্য ডিজাইন করা হয়েছে। প্রদত্ত নির্দেশনা অনুযায়ী ব্যবহার করলে পিন-স্ট্রেইট চুল দেওয়ার দাবি কোম্পানির।

PROS

  • ব্যবহার করা খুবই সহজ এবং কার্যকরী।
  • পকেট ফ্রেন্ডলি মানে সস্তা।
  • এটি ব্যবহার করার সাথে সাথে চুল মসৃণ ও ঝলমলে করতে উপকারী।
  • দীর্ঘস্থায়ী সোজা চুল প্রদান করে।
  • কোঁকড়া, কুঁচকে যাওয়া এবং জট পাকানো চুলের জন্য উপকারী।
  • এই ক্রিমটি প্রোটিন কেয়ার ফর্মুলার সাথে আসে, যা চুলকে দীর্ঘ সময়ের জন্য সোজা রাখে এবং চকচকে করে। এছাড়াও চুলের যত্ন নেয়।
  • চুলকে মসৃণ ও ঝলমলে করতে এই স্ট্রেটেনিং ক্রিমটি উপকারী হতে পারে।

CONS

  • কিছু সময় ব্যবহারের পর চুলে শুষ্কতা দেখা যায়।
  • লাগানোর কিছুক্ষণ পর শ্যাম্পু করলে তা আরও প্রাণহীন দেখাতে পারে।

L’oreal X-tenso Straightening Hair Cream

চুল সোজা করার ক্রিমের নাম | চুল সোজা করার ঘরোয়া পদ্ধতি

L’Oreal-এর এই কিটটিতে একটি মসৃণ ক্রিম এবং একটি নিউট্রালাইজার রয়েছে, যা চুলকে সোজা রাখতে সাহায্য করে। এই ক্রিমটি একেবারে সোজা চুল দেয় এবং জট নিয়ন্ত্রণ করে এবং চুলকে পরিচালনাযোগ্য এবং মসৃণ করে।

PROS

  • দীর্ঘ সময় ধরে চুল সোজা করতে সহায়ক।
  • এই ক্রিম একটি পেশাদার চেহারা দেয়।
  • কোম্পানির দাবি অনুযায়ী, চুলের ধরন অনুযায়ী এই ক্রিমের প্রভাব 60 দিন পর্যন্ত স্থায়ী হতে পারে।
  • চুল নরম ও কোমল করে।
  • অধিক কোঁকড়ানো চুলেও কার্যকর।

CONS

  • অন্যান্য পণ্যের তুলনায় ব্যয়বহুল।
  • এটি ক্রমাগত ব্যবহার চুল পড়ার ভয় রাখে।

L’Oreal Paris Studio Line Hot and Smooth, Hot and Sleek Cream

চুল সোজা করার ক্রিমের নাম | বাকা চুল সোজা করার পদ্ধতি

স্ট্রেইটনিং ক্রিমের এই তালিকায় আবারও রয়েছে লরিয়েলের নাম। লরিয়ালের এই পণ্যটি প্রায় 48 ঘন্টা চুল সোজা রাখতে সাহায্য করতে পারে। এটিতে একটি বিশেষ থার্মো প্রোটেক্ট বৈশিষ্ট্য রয়েছে, যা আপনাকে কেবল সিল্কি, মসৃণ এবং চকচকে চুল দেয় না, চুলকে ক্ষতির হাত থেকেও রক্ষা করতে পারে।

PROS

  • তাপ রক্ষাকারী চুলের ক্রিম।
  • স্বাভাবিকের চেয়ে দ্রুত চুল সোজা করতে সাহায্য করতে পারে।
  • ফ্রিজি চুলকে দীর্ঘ সময়ের জন্য সোজা রাখতে সাহায্য করতে পারে।
  • ব্যবহারের জন্য খুব বেশি পরিমাণ প্রয়োজন হয় না।
  • চুল নরম ও সিল্কি করার পাশাপাশি মাথার ত্বকে তেল নিয়ন্ত্রণ করে।
  • গরম করার সরঞ্জাম দিয়ে কাজ করার পরেও চুল পড়ার ঝুঁকি নেই।
  • চমৎকার প্যাকেজিংয়ের কারণে এটি ভ্রমণ বান্ধব।

CONS

  • গন্ধ খারাপ এবং রাসায়নিক সমৃদ্ধ।
  • শুধুমাত্র অনলাইনে সহজে পাওয়া যায়।
  • দামও বেশি।

Berina Hair Straightener Cream

চুল সোজা করার ক্রিমের নাম | আয়রন দিয়ে চুল সোজা করার পদ্ধতি

বেরিনা হেয়ার স্ট্রেটেনিং ক্রিম সেরা চুল সোজা করার ক্রিমগুলির মধ্যে একটি। এই কিটে রয়েছে 1 টিউব বেরিনা স্ট্রেইটনার ক্রিম, 1 টিউব বেরিনা ফিক্সার নিউট্রালাইজার এবং কন্ডিশনার। এটি ব্যবহারের আগে এর নির্দেশাবলী পড়তে হবে।

PROS

  • আপনি এটি ব্যবহার করার সাথে সাথে আপনি চকচকে এবং সোজা চুল পেতে পারেন।
  • ফিক্সার নিউট্রালাইজার চুলকে লম্বা রাখার জন্য সঠিক পরিমাণে আর্দ্রতা প্রদান করে।
  • এটি ব্যবহার করা সহজ।
  • চুল সিল্কি এবং হাইড্রেটেড করতে সাহায্য করে।

CONS

  • এটি ব্যবহারের প্রক্রিয়াটি দীর্ঘ।
  • বেশি মাত্রায় বা দীর্ঘ সময়ের জন্য ব্যবহার করলে চুল ধূসর হয়ে যেতে পারে।
  • এটি খুব ঘন ঘন ব্যবহার করলে চুল শুষ্ক ও প্রাণহীন হয়ে যায়।

Oxyglow Herbal Professional Salon Hair Straightener with Neutralizing Cream

চুল সোজা করার ক্রিমের নাম | ছেলেদের চুল সোজা করার প্রাকৃতিক উপায়

অক্সিগ্লো প্রফেশনাল হেয়ার স্ট্রেটেনিং ক্রিম চুলকে সিল্কি, মসৃণ এবং চকচকে করতে ব্যবহার করা যেতে পারে। এই ক্রিম নিয়ন্ত্রণযোগ্য চুল সোজা করতে পারে। এছাড়াও এটি কোঁকড়া চুলকে কিছুটা হলেও সোজা করতে পারে।

PROS

  • শুষ্ক ও ঝরঝরে চুলের জন্য উপকারী।
  • এটি ক্ষতিকারক UV রশ্মি, তাপ এবং হেয়ার ড্রায়ারের গরম বাতাস থেকে চুলের শুষ্কতার বিরুদ্ধে কাজ করে।
  • সব ধরনের চুলের জন্য উপযুক্ত।
  • চুলের আর্দ্রতা ধরে রাখতে এটি উপকারী।

CONS

  • এই ক্রিম দামি।
  • এর প্যাকেজিং ভালো নয়।
  • ক্রমাগত ব্যবহারে চুল দুর্বল হয়ে যেতে পারে।

লেখাটি পড়তে থাকুন

এখানে আমরা বলেছি কীভাবে সেরা চুল সোজা করার ক্রিম বেছে নেবেন।

আপনার চুল অনুযায়ী চুল সোজা করার ক্রিম কীভাবে চয়ন করবেন?

যাইহোক, আপনি জানেন যে চুলের অনেক প্রকার রয়েছে, একইভাবে ক্রিমও চুল অনুযায়ী নির্বাচন করা হয়। এটি প্রয়োজনীয় নয় যে একটি ক্রিম সব ধরনের চুলের জন্য উপযুক্ত। তাই চুলের জন্য হেয়ার স্ট্রেইটনিং ক্রিম নেওয়ার সময় কী কী বিষয় মাথায় রাখতে হবে তা এখানে আমরা বলছি।

  • প্রথমেই দেখে নিন ক্রিমটি যেন রাসায়নিকমুক্ত হয়।
  • ক্রিম কতক্ষণ চুলে কার্যকর হতে পারে তাও জানা জরুরি।
  • অনলাইন তথ্য এবং ব্যবহারকারীর রিভিউ আপনাকে ক্রিম সম্পর্কে আরও জানতে সাহায্য করতে পারে।
  • ক্রিম বেছে নেওয়ার আগে আপনার বিউটিশিয়ানের পরামর্শ নিন।
  • ক্রিমের প্যাকেটে অবশ্যই লেখা থাকে এটি কোন ধরনের চুলের জন্য উপযুক্ত।
  • ক্রিমটিতে কী কী উপাদান রয়েছে তা জানতে লেবেলটি পরীক্ষা করতে ভুলবেন না।
  • ক্রিমের মেয়াদ শেষ হওয়ার তারিখ দেখতে ভুলবেন না।
  • এছাড়াও, ক্রিমটি বিশেষজ্ঞদের দ্বারা প্রত্যয়িত কিনা তা খুঁজে বের করার চেষ্টা করুন। পাশাপাশি বিভিন্ন পরীক্ষায় পাশ হয়েছে কিনা জানতে হবে।

এখনও আরো আছে, পড়তে থাকুন

এখানে আমরা বলছি কিভাবে চুল সোজা করার ক্রিম ব্যবহার করা উচিত।

চুল সোজা করার ক্রিম লাগানোর সঠিক উপায় কি?

যদিও এটি ব্যবহার করার উপায় প্রতিটি ক্রিমের মোড়কে দেওয়া আছে, তবুও কিছু লোকের এটি ব্যবহারে অসুবিধা হতে পারে। তাই, আমরা এখানে এটি প্রয়োগ করার কিছু সহজ পদক্ষেপের কথা বলছি, যা অনুসরণ করে আপনি চুল সোজা করার ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন।

পরিষ্কার চুল: প্রথমে চুল ভালো করে পরিষ্কার করে নিন। চুল সঠিকভাবে পরিষ্কার না করলে, এতে উপস্থিত ধুলোবালি ও তেলের কারণে ক্রিম সঠিক ফল দেয় না।

চুল ছোট ছোট অংশে ভাগ করুন: ক্রিম লাগানোর আগে লম্বা চুলকে ছোট ছোট ভাগে ভাগ করে নিন। এর ফলে চুলে সমানভাবে ক্রিম লাগানো সহজ হয়। এর জন্য পিন বা ছোট ক্লাচ ব্যবহার করা যেতে পারে।

চুল সোজা করার ক্রিম লাগান: সমস্ত প্রস্তুতির পরে, আপনার চুলে হেয়ার স্ট্রেটেনিং ক্রিম লাগান এবং তারপর একটি চিরুনির সাহায্যে সমস্ত চুলে ছড়িয়ে দিন। এর পর ভালো ফল পেতে চুলকে 20 থেকে 30 মিনিট রেখে দিন।

এবার চুল ধুয়ে নিন: ক্রিমটি 20 থেকে 30 মিনিটের মধ্যে চুলে ভালভাবে শোষিত হয়। 20 থেকে 30 মিনিট পর হালকা গরম পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন।

চুল কে শুকান: এর পর চুল স্বাভাবিকভাবে শুকাতে দিন। এভাবে কয়েক মিনিটের মধ্যে চুল সোজা হয়ে যাবে।

জট পাকানো চুল সোজা করা এবং দীর্ঘ সময়ের জন্য সোজা রাখা একটি চ্যালেঞ্জ হতে পারে, তবে কিছু চুল সোজা করার ক্রিম ব্যবহার করে চুলকে দীর্ঘ সময়ের জন্য সোজা করা যায়। এই পোষ্ট এ, আপনি তেমন কিছু ক্রিম সম্পর্কে জানলেন। এর সাথে আমরা ক্রিম ব্যবহার এবং চুল সোজা রাখার পদ্ধতি সম্পর্কেও জানালাম। আশা করি এই লেখাটি চুল সোজা করার ক্রিম বেছে নেওয়ার ক্ষেত্রে আপনার জন্য সহায়ক হবে।

Sharing Is Caring: